ভোটার আইডি কার্ড চেক করার নিয়ম

ভোটার আইডি কার্ড চেক করার নিয়ম এখানে দেখুন।  ২০২৪ সালে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনার ভোটার আইডি কার্ড দেখার জন্য নতুন নিয়ম প্রকাশ করেছে। সমৃদ্ধশীল ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে সকল ব্যবস্থাপনা প্রযুক্তির আওতায় আনা হয়েছে। ভোটার আইডি কার্ড কিংবা জন্ম সনদ এই সকল প্রয়োজনীয় কাগজপত্রাদি ডিজিটালাইজেশনের জন্য ওয়েবসাইট থেকে এনআইডি কার্ডের সকল তথ্য জানতে পারবেন। ওয়েবসাইটে এনআইডি কার্ড চেক করার নিয়ম এখানে জানতে পারবেন। এনআইডি কার্ড অনলাইনে চেক করার সবথেকে সহজতরো এবং যুগোপযোগী উপায় নিয়ে আজকের এই আলোচনা।এছাড়াও ভোটার আইডি কার্ড হারিয়ে গেলে কি করবেন কি করনীয় সেই সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পাববেন আজকের আর্টিকেল এর মাধ্যমে।

ভোটার আইডি কার্ড চেক করার নিয়ম

আসুন আগে জেনে নেই এনআইডি কার্ড  সম্পর্কে। এই মুহূর্তে আমরা যে সহজ মাধ্যমে এনআইডি কার্ড চেক এর কথা বলব সেটা দিয়ে আপনি আপনার এনআইডি কার্ড সহ অন্য কারো এনআইডি কার্ড চেক করতে পারবেন। click

অনেক সময় আমাদের এই জাতীয় পরিচয় পত্র চেক করার প্রয়োজন তখনই পড়ে যখন আমাদের জাতীয় পরিচয়পত্রে কোন প্রকার ভুলভ্রান্তি অথবা নাম সংশোধন অথবা জন্ম তারিখ সহ যেকোনো প্রকার ভুল ত্রুটি সংশোধিত করতে হবে কিনা অথবা সংশোধিত হয়েছে কিনা সেটা যাচাই করতে হয়। এছাড়াও আপনার এন আই ডি কার্ডের আপনার ব্যক্তিগত তথ্যগত কোন প্রকার কমতি আছে কিনা সেই সম্পর্কে জানতে এনআইডি কার্ড চেক করতে প্রয়োজন পরে।

যেভাবে অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড চেক করবেন

আপনার হাতে একটি স্মার্টফোন আছে মানে আপনার কাছে এই কাজটি করার সবথেকে সহজ উপায়ে জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই করতে পারবেন। তো চলুন জেনে নিই এনআইডি কার্ড চেক করার সঠিক এবং সহজ পদ্ধতি, আপনি আপনার ফোন থেকে একটি ছোট্ট এর মাধ্যমে তথ্য যাচাই করতে পারবেন সে ক্ষেত্রে আপনাকে যেতে হবে তার ফোনের প্লে স্টোরে গিয়ে নামিয়ে ফেলতে হবে online gd অ্যাপলিকেশন। সচরাচর নিয়ম মেনে অ্যাপ টি ইন্সটল করার মাধ্যমে আপনার ফোনে এনআইডি কার্ড যাচাই করার মাধ্যমটি উন্মুক্ত হয়ে যাবে।

Check Now 

অ্যাপ্লিকেশন দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার নিয়ম 

এপ্লিকেশন টু ইন্সটল করা সম্পূর্ণ হয়েছে তো তারপর আপনি অ্যাপ্লিকেশনে ভেতরে প্রবেশ করুন। সেখানে উপরে বাম দিকে নিবন্ধন বাটনে ক্লিক করার পরে সেখানে একটি বক্স আসবে । সেখানে আপনি আপনার জাতীয় পরিচয়পত্রের নাম্বার এবং জন্ম তারিখ লিখে তার নিচে পরিচয় পত্র যাচাই বাটনে ক্লিক করুন। পরবর্তী ইন্টারফ্রেজে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য প্রদর্শিত হবে।

মোবাইলের মাধ্যমে ভোটার আইডি কার্ড অনুসন্ধান করতে পারবেন যেভাবে।

ভোটার আইডি কার্ড চেক করার নিয়ম

আপনার কাছে একটি মোবাইল আছে মানে আপনার ভোটার আইডি কার্ড অনুসন্ধান করার অর্থই সহজ পন্থা আপনি বহন করছেন। আপনার হাতে থাকা মোটেও ফোনের মাধ্যমে ভোটার কার্ডের তথ্য সংগ্রহ করতে পারবেন। এসএমএস পাঠানোর মাধ্যমে জিডি অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে জাতীয় পরিচয় পত্র অনুসন্ধান করা যায়। হাতে থাকা মোবাইলে এসএমএস এর মাধ্যমে আইডি কার্ডের সকল প্রকার তথ্য জানার জন্য মোবাইলের মেসেজ অপশনে চলে যাবেন এবং টাইপ করবেন NID<space>NID no<soace>dd-mm-yyyy এবং পাঠিয়ে দিতে হবে 105 পেয়ে নাম্বারে। আপনার ফোন থেকে এইভাবে মেসেজ অপশনের টাইপ করে এসএমএস পাঠানোর পরে সেই নাম্বার থেকে একটি ফিফটি মেসেজ আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র নাম্বার জানিয়ে দিবেন এভাবে আপনি আপনার হাতে থাকুন মনের মাধ্যমে ভোটার আইডি কার্ডের অনুসন্ধান করতে সক্ষম হবেন।

নতুন ভোটার হিসেবে এনআইডি কার্ড চেক করার নিয়ম

সরকার কোট থেকে নির্ধারিত নির্দিষ্ট কিছু নিয়ম অনুসরণের মাধ্যমে আপনি নতুন ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে পারবেন। উপরে নানাবিধ ভোটার কার্ড চেক করার নিয়ম দেখানো হয়েছে এখন আমরা দেখব নতুন ভোটার হিসেবে অন্তর্ভুক্ত যে সকল ভোটার সংযুক্ত হবে সেই সকল ভোটারদের আইডি কার্ড চেক করার নিয়ম। আপনি নির্বাচন কমিশনের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে গিয়ে রেজিস্টার মেনুতে ক্লেম একাউন্ট অপশন এ গিয়ে আপনার কাছে রক্ষিত হোম নাম্বার আপনার প্রয়োজনীয় তথ্য আপনার জন্ম তারিখ সংযুক্ত করে অনলাইনে সেবা পাওয়ার জন্য একটি রেজিস্ট্রেশন করে ফেলুন। অতঃপর লগইন মেনু থেকে লগইনের মাধ্যমে আপনার নতুন আইডি কার্ড চেক করতে পারবেন।

জাতীয় পরিচয়পত্র হারিয়ে গেলে কি করব? জেনে নিন জাতীয় পরিচয়পত্র হারালে কি করবেন

জাতীয় পরিচয়পত্র অতিব একটি  গুরুত্বপূর্ণ জিনিস। যার মাধ্যমে আপনার সকল প্রকার তথ্য বিদ্যমান। তাছাড়া ব্যক্তিগত অনেক কাজই জাতীয় পরিচয়পত্র ছাড়া করা সম্ভব হয় না। সব ক্ষেত্রেই এটি প্রয়োজন হয়।  তবে তা হারিয়ে যেতেই পারে। প্রথমে, নিকটতম থানায় জিডি করে জিডির মূল কপি সংশ্লিষ্ট উপজেলা/থানা নির্বাচন অফিসারের কার্যালয়ে অনুবিভাগে আবেদন করতে হবে। এখানে Click করুন।

জিডি করার পর নির্বাচন কমিশনের এই লিংকে গিয়ে ফরমটি পূরণ করে প্রিন্ট করবেন। পরে প্রিন্ট কপি নিয়ে সংশ্লিষ্ট উপজেলা/থানা নির্বাচন অফিসারের কার্যালয়ে অথবা ঢাকায় জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন বিভাগে আবেদন করতে পারবেন।হারানো আইডি কার্ড পেতে বা সংশোধন করতে সরকার কতৃক নির্ধারিত ফি ধার্য করা আছে।

হারিয়ে যাওয়া NID CARD রিইস্যু সমাধানের জন্য যে সকল কাগজপএ লাগবে

একজন ব্যক্তির যদি জাতীয় পরিচয়পএ হারিয়ে যায়। তাহলে জিডি করার জন্য তাকে যে সকল কাগজ পএ সংগ্রহ করতে হবে। তো আমার  এখন জানবো। যদি কোনো কাগজ পত্রের কথা বলে  তাহলে এগুলো নিয়ে আপনার তেমন কোনো টেনশন করার প্রয়োজন হবে না।  আপনি যখন এনআইডি রি-ইস্যুর জন্য জিডি করতে যাবেন তখন  তেমন কোনো কাগজ পত্রের প্রয়োজন হবে না।শুধু রি-ইস্যুর জন্য জিডির কপি কাছে রাখবেন। তাহলে আপনার কোনো প্রকার সমস্যা হবে না।

  •  এছাড়াও নির্বাচন কমিশনের কিছু প্রশ্ন ও তার উত্তর তুলে ধরা হলো-
  • প্রশ্ন: হারানো ও সংশোধন একই সঙ্গে করা যায় কি?
  • উত্তর: না্।আগে হারানো কার্ড তুলতে হবে, পরে সংশোধনের জন্য আবেদন করা যাবে।
  • প্রশ্ন: হারিয়ে যাওয়া আইডি কার্ড কীভাবে সংশোধন করব?
  • উত্তর: প্রথমে হারানো কার্ড উত্তোলন করে পরে সংশোধনের আবেদন করতে হবে।

কিছু প্রশ্নের উত্তর

প্রশ্ন;মোবাইল নাম্বার দিয়ে ভোটার আইডি বের করার নিয়ম কি?

উত্তর; আপনার হাতে থাকা মোবাইল নাম্বার দিয়ে এসএমএস এর মাধ্যমে অথবা নির্বাচন কমিশনারের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে ভোটার আইডি কার্ডের সকল তথ্য জানতে পারবেন।

প্রশ্ন ;মোবাইলে ভোটার আইডি চেক করার উপায় কি?

উত্তর; বাংলাদেশের নির্বাচন কমিশনের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটের দ্বারা নিয়ন্ত্রিত অফিসিয়াল এপ্লিকেশন এর মোবাইলে ইন্সটল করে ভোটার আইডি চেক ও বিস্তারিত তথ্য জানতে পারবেন না।

প্রশ্ন; আইডি কার্ড হারিয়ে গেলে কিভাবে নতুন আইডি কার্ড পাবেন?

উত্তর; ভোটার আইডি কার্ড হারিয়ে গেলে অনলাইনে পুনরায় মুদ্রণ এর জন্য আবেদন করুন আবেদনের অনুমোদিত হওয়ার পর আপনার মোবাইলে টিভি এসএমএস পাঠানো হবে পরবর্তীতে অনলাইন থেকে আপনার ইমেল আইডি কার্ডের কপি ডাউনলোড করতে পারবেন।

প্রশ্ন; ভোটার আইডি কার্ডের তথ্য কিভাবে সংশোধন করা যায়?

উত্তর ; আপনার মোবাইলে অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে অনলাইন রেজিস্ট্রেশন উইন উপজেলা থানা জেলা নির্বাচন অফিসে ভুল তথ্য সংশোধনের জন্য আবেদন করতে পারতেন।

প্রশ্ন; কোন একজন ব্যক্তি সঠিক সময়ে ভোটার হিসেবে রেজিস্ট্রেশন করতে না পারলে করণীয় কি?

উত্তর; আপনি যেকোনো সময় যে কোন দিনে অনলাইনে রেজিস্ট্রেশনের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

বাংলাদেশ সরকারের ভোটাধিকার আদায়ের জন্য ভোটার কার্ডের সকল তথ্য সংযোজন করা সংশোধন, হারিয়ে গেলে করণীয় কি এই সকল বিষয়ে সম্পর্কে অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে  স্পষ্টভাবে  সকল সুবিধা দেওয়া আছে। দায়িত্ব হালনাগাদ পরিবর্তন সংযোজন ও সংশোধন করতে চাইলে বা করার প্রয়োজন হলে বিচলিত না হয়ে সকল জন্য সঠিকভাবে সমাধানের সকল পরামর্শ করবেন এখানে।